Breaking News :

দর্শকবিহীন মাঠে পাকিস্তানের খেলতে আপত্তি নেই

করোনার প্রভাব শুধ যে ব্যবসা বানিজ্যের পর পরেছে তা না। খেলাধুলার উপরও এর প্রভাব পরেছে। জার্মানি প্রথম করোনা সময়ে ফুটবল শুরু করতে যাচ্ছে। আগামী ১৬ই মে থেকে শুরু হবে দেশটির শীর্ষ ফুটবল আসর বুন্দেসলিগা ও এর দ্বিতীয় স্তর বুন্দেসলিগা টু। লা লিগা আনুষ্ঠানিকভাবে আগামী ২০শে জুন তাদের লীগ শুরু করবে।

সেই পথেই হাঁটতে চাচ্ছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। আর সেই ধারাবাহিকতায়ই আগস্টে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওল্ডট্র্যাফোর্ড, ম্যানচেস্টার এবং সাউদাম্পটনে ফাঁকা স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার কথা ভাবছে পাকিস্তান।

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক, প্রধান কোচ-কাম-প্রধান নির্বাচক মিসবাহ-উল-হক জানান, মার্চ মাসে বিশ্বস্বাস্থ্য সংকটের কারণে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) বন্ধ হওয়ার পর গত দুই মাস ধরে খেলোয়াড়রা বাড়ির ভিতরে বন্দি অবস্থায় আছে। আমি মনে করি, খেলা হলে ঘরে বসে থাকা লোকদের জন্য কিছুটাও হলেও ভালো হবে। তারা সরাসরি খেলা দেখতে না পারলেও অন্তত ঘরে বসে টিভিতে খেলা দেখার সুযোগ পাবে।

তিনি আরও বলেন, ঘরে বসে সারাক্ষণ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এবং মৃত্যু লোকেদের সংবাদ শুনলে যে কেউ আতঙ্কিত হবে। তার চেয়ে যদি খেলা দেখতে পারে তাহলে সে কিছুটা হলেও বিনোদন পাবে। তাই এই পরিস্থিতিতে যদি খেলাধুলা আবার চালু করা যায় তাহলে ভালো হবে।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের এই মহামারীর মধ্যে হাজার হাজার দর্শকের উপস্থিতি খেলা আদর্শ পরিস্থিতি এখন নয়। সবার স্বাস্থ্য ও সুস্থতা আমাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়া উচিত। তিনি বলেন, খেলা না থাকলেও পেশাদার ক্রিকেটাদেরকে নিজের ফিটনেসের যত্ন নেয়া ব্যক্তিগত দায়িত্ব। কারণ যখন খেলার সুযোগ হবে তখন যদি সে আনফিট হয়ে যায় তাহলে খেলতে পারবে না। ফিট থাকলে সে দ্রুত ফর্ম ফিরে পেতে পারে।

শুক্রবার এক সাক্ষাৎকারে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মিসবাহ আরও বলেন, যে করেই হোক খেলা মাঠে ফেরানো উচিত, প্রয়োজনে খালি স্টেডিয়ামগুলোতে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হতে পারে। তাতে আমাদের পক্ষ থেকে কোনো সমস্যা নেই।

সুত্রঃ পিটিভি

বাংলা ক্যালেন্ডার

Alert! This website content is protected!