Breaking News :

তুরস্ক বলেছে রোহিঙ্গা ইস্যুটি নিরাপত্তা পরিষদে উঠানো হবে

তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু শনিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনকে টেলিফোন করেন এবং এক পর্যায়ে তিনি তাকে আশ্বস্থ করে বলেন রোহিঙ্গা ইস্যুটি পরবর্তী জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে ওঠাবে তুরস্ক।

শনিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশে অবস্থানরত মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের বিষয়ে খোঁজ নিয়েচেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে টেলিফোনের মাধ্যমে তিনি এই খোঁজখবর নেন।

মেভলুত কাভুসোগলু বলেন, তুরস্ক বাংলাদেশের সাথে সবসময় তার বন্ধুত্বে বিশ্বাস করে। রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে পাঠানোর বিষয়ে তুরস্ক সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে।

এ কে আব্দুল মোমেন জানান, তিনি তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছেন পরের বছর ডি-৮ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে বর্তমান পরিস্থিতিতে সম্মেলনের প্রস্তুতির জন্য মহাপরিচালক পর্যায়ের কমিশনারদের ভার্চ্যুয়াল সেশন আয়োজন যেন করা হয়।

এছাড়া তিনি তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন করোনা–পরবর্তী পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক সহযোগিতা জোরদার করার জন্য ডি-৮–এর একটি ওয়ার্কিং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করার জন্য । এসব বিষয়ে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশের প্রস্তাবে সম্মতি জানান।

বর্তমানে তুরস্ক ডি-৮–এর সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে। ডি-৮–এর পরবর্তী সম্মেলন এ বছরের মে মাসে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। স্বল্পোন্নত দেশের জন্য জি-২০–এর বরাদ্দকৃত ৭ ট্রিলিয়ন ডলার থেকে বাংলাদেশ যেন সহযোগিতা পায়, সে বিষয়ে জি-২০–এর সদস্যরাষ্ট্র হিসেবে তুরস্কের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন আব্দুল মোমেন।

তিনি উল্লেখ করেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে কর্মরত বাংলাদেশের শ্রমিকদের অনেকে আর্থিক ও খাদ্যসংকটে আছেন। বাংলাদেশি প্রবাসীরা যেন তাঁদের চাকরি বহাল রাখতে পারেন, সে বিষয়ে তুরস্কের সহযোগিতা কামনা করেন।

তিনি আরোও বলেন, যদি কোনো শ্রমিক দেশে ফেরত আসেন, তবে তাঁরা যেন কমপক্ষে ৬ মাসের বেতনের সমপরিমাণ আর্থিক সহায়তা পান, সে বিষয়ে তিনি তুরস্কের সহযোগিতা চান।

করোনার কারণে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকশিল্প যেন ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সে ব্যাপারটি উল্লেখ করে আব্দুল মোমেন বিভিন্ন দেশের ক্রেতারা যাতে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকশিল্পের ক্রয়াদেশ বাতিল না করেন, সে বিষয়ে তুরস্কের সহযোগিতা কামনা করেন।

খাদ্য নিরাপত্তার বিষয়ে প্রস্তাব দেওয়া হলে। একসঙ্গে কাজ করার বিষয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রস্তাবে সম্মতি জানান তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

করোনা থেকে সুরক্ষিত থাকতে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশকে ১ লাখ সার্জিক্যাল মাস্কসহ এন-৯৫ মাস্ক সহায়তা দেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

বাংলা ক্যালেন্ডার