Breaking News :

আবারও স্টেডিয়ামে দেখা যাবে মেসি-সার্জিও রামোসদের

করোনার আঘাতে বিশ্ব জর্জরিত। বাকরুদ্ধ প্রতিটি মানুষ। কর্মহীন হয়ে পরেছে লক্ষ লক্ষ মানুষ। কর্মহীন হয়ে পরেছেন ফুটবল খেলোয়ারেরাও। করোনার ফলে লা লিগা সহ সব ধরনের ক্লাব ফুটবল বন্ধ আছে। সেই অপেক্ষার প্রহর হয়তো শেষ হতে যাচ্ছে খুব শীঘ্রই।

লিওনেল মেসি-সার্জিও রামোসদের মাঠে দেখা যাবে জুন এর মাঝামাঝি সময় থেকে আনুষ্ঠানক ঘোষণা না এলেও লা লিগা ইন্ডিয়ান ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং অন্যতম দল লেগানেসের কোচ নিশ্চিত করেছেন, জুনের মাঝামাঝি মাঠে গড়াবে স্প্যানিশ লা লিগা।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, লেগানেস কোচ হাভিয়ের আগুয়েরে মেক্সিকোর সংবাদমাধ্যম মার্কা ক্লারোকে বলেন, লা লিগা আনুষ্ঠানিকভাবে আমাকে জানিয়েছে আগামী ২০শে জুন লীগ শুরু হবে। আর শেষ হবে ২৬শে জুলাই। ম্যাচ ডে থাকবে সপ্তাহে চারদিন, শনি ও রবিবার এবং বুধ ও বৃহস্পতিবার।

তবে সামাজিক যে দূরত্ব মানতে বলা হয়েছে তা নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। লা লিগার খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হবে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে। লা লিগা ভারতের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসে আন্তোনিও বৃহস্পতিবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে দেয়া সাক্ষাতকারে বলেন, জার্মান বুন্দেসলিগা দেখিয়েছে এই পরিস্থিতির মধ্যেও কিভাবে ফুটবল শুরু করা যায়। লা লিগা তাদের পদাঙ্ক অনুসরণ করে ফুটবল মাঠে গড়ানোর পরিকল্পনা করছে।

উল্লেখ্য, স্পেনের জিডিপিতে লা লিগার অবদান ১.৪ শতাংশ। সরকারের সঙ্গে একাধিকবার আলোচনার পর লা লিগা শুরুর সময় নির্ধারণ করা হয়েছে, জুনের দ্বিতীয় অথবা তৃতীয় সপ্তাহে। ক্লাবগুলোকেও এ সম্পর্কে অবহিত করা হয়েছে।

ভারতের ১৪টি শহরে লা লিগার রয়েছে ৩০টি ফুটবল একাডেমী। স্প্যানিশ লা লিগার টেলিভিশন দর্শকের বড় একটা অংশ ভারতীয়রা। লা লিগা কর্তৃপক্ষ তিন বছর আগে ভারতে তাদের অফিস খুলেছে।

লা লিগা ম্যাচগুলো শুরুর আগে স্পেন সরকারের পক্ষ থেকে চার ধাপের প্রস্তুতিপর্ব বেঁধে দেওয়া হয়েছে। ফুটবলার-কোচদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে প্রথম ধাপ। পরীক্ষা শেষে ছাড়পত্র পাওয়া ক্লাবগুলোর ফুটবলাররা আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু করবেন দূরত্ব বজায় রেখে অনুশীলন। ১৮ই মে থেকে ছোট ছোট গ্রুপে ভাগ হয়ে, ২৫শে মে থেকে স্কোয়াডের অর্ধেক এবং ১লা জুন পুরো দল একসঙ্গে অনুশীলনে ফিরবে বলে জানিয়েছে লা লিগা কর্তৃপক্ষ।

লা লিগায় বাকি আছে আর ১১ রাউন্ড। বুন্দেসলিগার মতো লা লিগার মৌসুমের বাকি সব ম্যাচই হবে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে। ২৭ ম্যাচে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে বার্সেলোনা। সমান ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে রয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ।

অন্যান্য দেশগুলো তাদের ক্লাব ফুটবল ম্যাচগুলো পুনরায় শুরু করবে কি না এনিয়ে কোন সিদ্ধান্ত এখনও নেওয়া হয় নি। তবে ইউরোপের শীর্ষ লীগগুলোর মধ্যে জার্মানি প্রথম করোনা সময়ে ফুটবল শুরু করতে যাচ্ছে। আগামী ১৬ই মে থেকে শুরু হবে দেশটির শীর্ষ ফুটবল আসর বুন্দেসলিগা ও এর দ্বিতীয় স্তর বুন্দেসলিগা টু।

বাংলা ক্যালেন্ডার

Alert! This website content is protected!