Breaking News :

আমেরিকার গভর্নরের দাবি করোনাভাইরাসের জন্য দায়ি ইউরোপ

চীন নয়, ইউরোপ থেকেই যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে বলে অভিযোগ করেছেন নিউইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো। তিনি বলেছেন, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষ থেকে ভ্রমণ নিয়ন্ত্রণের আদেশটি অনেক পরে এসেছে, এর মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্য নিউইয়র্কের গভর্নর বলেন, শুরুতে চীনের সঙ্গে আমেরিকা ভ্রমণ নিয়ন্ত্রণ করার মধ্য দিয়ে সামনের দরজা ঠিকই বন্ধ করা হয়েছিল। তবে পিছনের দরজা খুলে রাখা হয়েছিল।আর এটাই ট্রাম্পের জন্য সবচেয়ে বড় ব্যার্থতা। যখন টের পাওয়া গেছে, তখন অনেক দেরি হয়ে গেছে।

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট করোনা মোকাবেলায় সমপূর্নভাবে ব্যার্থ এবং এ দায় তাকেই নিতে হবে।নিউইয়র্কে যখন করোনাভাইরাসে একজন মারা গেল তখনও কোন পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। রোগটিকে খুবই তুচ্ছভাবে নেওয়া হয়েছিল। যেন সাধারন একটি ফ্লু।

তিনি বলেন, এই রকম ভুল যেন বারবার না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে নিউইয়র্ক ও নিউ জার্সির বিমানবন্দরগুলোতে ইউরোপ থেকে এক হাজার ৩০০ ফ্লাইট এসেছে। এসব ফ্লাইটে যাত্রী ছিল প্রায় ২২ লাখ। এদের মাধ্যমেই যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণ ঘটেছে বলে এখন মনে করা হচ্ছে।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে যুক্তরাষ্ট্রে। গত ১০ দিনে দেশটিতে কোভিড-১৯ মহামারিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। করোনাভাইরাসে যত সংখ্যক মার্কিন নাগরিক মারা গেছে, তা কোরীয় যুদ্ধের চেয়ে বেশি। ১৯৫০ থেকে ১৯৫৩ সাল পর্যন্ত চলা ওই যুদ্ধে ৩৬ হাজার ৫১৬ মার্কিন নাগরিক মারা যায়। বিশ্বজুড়ে চার মাস ধরে তান্ডব চালাচ্ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এর প্রকোপ এখন ইউরোপ-আমেরিকায়ই সবচেয়ে বেশি।

সংবাদসূত্র : আল-অ্যারাবিয়া, রয়টাস, আলজাজিরা, সিএনএন

বাংলা ক্যালেন্ডার

Alert! This website content is protected!