Breaking News :

নিউ ইস্কাটনের দিলু রোডের একটি পাঁচতলা ভবনে আগুন

ঢাকার নিউ ইস্কাটনের দিলু রোডে অবস্থিত একটি পাঁচতলা ভবনের নিচতলায় গ্যারেজে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। উক্ত ঘটনায় শিশুসহ তিনজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে ফায়ার সার্ভিস। এতে বেশ কয়েকজন অগ্নিকান্ডে দগ্ধ হয়েছেন। আজ  (বৃহস্পতিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি) ভোর ঠিক সাড়ে ৪টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেওয়া হয়। ফায়ার সার্ভিসের আট ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে প্রায় ১ঘন্টার আপ্রাণ চেষ্টায় ভোর সাড়ে ৫টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তৎক্ষনাত আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি।

নিহত তিনজনের মধ্যে একজনের পরিচয় জানা গিয়েছে। তিনি হলেন লক্ষ্মীপুর সদরের মোহাম্মদ উল্লাহর ছেলে আব্দুল কাদের লিটন (৪০)। লিটন এই ভবনের গ্যারেজের পাশের একটি রুমে থাকতেন। উক্ত ভবনটির দ্বিতীয় তলায় ক্ল্যাসিক ফ্যাশন ইন্টারন্যাশনাল প্রতিষ্ঠানে অফিস সহকারী হিসেবে কাজ করতেন। ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কন্ট্রোল অপারেটর বাবুল এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় দু্ইজনকে জরুরীভাবে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। অগ্নিকান্ডের ধোয়ায় কয়েকজন অসুস্থ হয়ে ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া  জানান, অগ্নিকাণ্ডে নিহত এক শিশুসহ তিনজনের মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

দগ্ধ শহিদুল কিরমানি রনি ও তার স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢামেকের বার্ন ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে জান্নাতুলের শরীরের ৯৫ শতাংশ ও রনির শরীরের ৪৩ শতাংশ পুড়ে গেছে। তারা ওই ভবনের তৃতীয় তলার বাসিন্দা।

এদিকে দগ্ধদের স্বজন নাসরিন জানান, দগ্ধ দম্পতির তিন বছরের এক সন্তান রুশদি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ রয়েছে। এছাড়াও ধোয়ায় অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছে একই পরিবারের চার সদস্য। তারা হলেন- মনির হোসেন, সুমাইয়া আক্তার, মাহাদী হাসান ও মাহমুদুল হাসান। তারা ওই ভবনের পঞ্চম তলার বাসিন্দা।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কন্ট্রোল অপারেটর বাবুলের কাছে অগ্নিকান্ডের কারন জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান প্রাথমিকভাবে তাদের ধারনা বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে সুত্রপাত্র হতে পারে। তবে, বিস্তারিত এখন বলা সম্ভব হচ্ছে না।

বাংলা ক্যালেন্ডার