Breaking News :

ওমরাহ ও টুরিস্ট ভিসা বাতিল করলো সৌদি সরকার

আল্লাহকে পাওয়ার আশায় মানুষ যায় সৌদি আরব (মক্কা ও মদিনায়)। যদি আল্লাহ তায়ালা বান্দার গুনাগুলোকে মাফ করে দেয়। বিভিন্ন রোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য নিজের আবেগ দিয়ে জীবনের সমস্ত গুনাহগুলোকে সামনে রেখে মহান সৃষ্টি কর্তার কাছে চায় এবং যুগ যুগ ধরে বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত মানুষগুলো পবিত্র মক্কায় ওমরাহ এবং রাসুল (সাঃ) রওজা মোবারক জিয়ারতের মাধ্যমে সুস্থ্য হয়ে ফেরার নজির লক্ষ লক্ষ দেখা যায়। আর সেই রোগের ভয়ে পবিত্র স্থানগুলোতে ওমরাহ নিষিদ্ধ করা মোটেও মুসলিম উম্মার জন্য শুভকর নয়। বরং এই নিষেদ্ধাজ্ঞা মুসলিম উম্মার জন্য ভয়ংকর অশনিসংকেত। কেননা কিছু দিন পরই পবিত্র শবে মেরাজ, এর কিছু দিন পর শবে বরাত এবং এর ১৫দিন পর পবিত্র রমজান মাস শুরু হবে। এই মুহুর্তে এমন একটি সিদ্ধান্ত আসলেই হতাশাজনক। টুরিস্টদেরকে এই নিষেদ্ধাজ্ঞার ভিতরে রাখা যেতে পারতো। কিন্তু ওমরাহ পালনকারীদেরকে এই নিষেদ্ধাজ্ঞার মধ্যে আনাটা সৌদি সরকারের এক গোয়ামী বলে অনেকে বলছেন।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাব ভয়ঙ্করভাবে বেড়ে যাওয়ায় ওমরাহ ও ভ্রমণ ভিসা সাময়িক স্থগিত করেছে সৌদি আরব। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতের একথা জানিয়েছে। রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সির বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে সৌদি গেজেট ও আরব নিউজ।

ওমরাহর পাশাপাশি মসজিদে নববী পরিদর্শনেও সাময়িক স্থগিতাদেশ দেয়া হয়েছে। যেসব দেশে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে সেসব দেশের নাগরিকদের প্রতি নিষেধাজ্ঞারোপ করেছে সৌদি সরকার। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় জনগণের নিরাপত্তার বিষয়টি চিন্তা করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরামর্শ অনুসারে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটি।

সৌদির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় জানিয়েছে, করোনাভাইরাস নিয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা গ্রহণ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এর ঘটনাগুলি ঘনিষ্ঠভাবে অনুসরণ করছে তারা। আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখে এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার করোনা প্রতিরোধ প্রচেষ্টার আহ্বানের অংশ হিসেবে এমন সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সৌদি নাগরিক যারা গালফ (আরব উপসাগরীয়) দেশগুলো থেকে সৌদি ফিরবেন তারা শুধুমাত্র জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন না। তারা কোন দেশ থেকে এসেছেন বা এর আগে কোন দেশ ভ্রমণ করেছেন সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দিতে হবে। তবে সৌদিতে থাকা গালফ দেশগুলোর নাগরিকরা স্বাভাবিকভাবেই সৌদি ত্যাগ করতে পারবেন।

এই নিষেধাজ্ঞা সাময়িক এবং অবস্থা পরিবর্তন হলে এরও পরিবর্তন হবে বলে জানিয়েছে সৌদি। এছাড়া যেসব দেশে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে সেসব দেশে নাগরিকদের ভ্রমণ না করার পরামর্শ দিয়েছে দেশটির প্রশাসন।

চীন – ইরান – ইতালি – কোরিয়া – জাপান – থাইল্যান্ড – মালয়েশিয়া – ইন্দোনেশিয়া – পাকিস্তান – আফগানিস্তান – ফিলিপাইন – সিঙ্গাপুর – ভারত – লেবানন – সিরিয়া – ইয়েমেন – আজারবাইজান – কাজাখস্তান – উজবেকিস্তান – সোমালিয়া – ভিয়েতনাম এই দেশগুলোর মানুষ আপাতত টুরিস্ট ভিসা নিয়ে সৌদিতে প্রবেশ করতে পারবেন না।

বাংলা ক্যালেন্ডার