Breaking News :

গৃহবধূকে তার শিশু সন্তানের সামনেই দলবদ্ধ ধর্ষণ

মানবতা আর মনুষ্যত্ব আজ হায়েনার কবলে। কাল যে সন্তানটি পৃথিবীতে আসবে তারও বাঁচার নিশ্চয়তা নেই। নেই কোন নিরাপত্তা। সেই বিভীষাকাময় ঘটনা নুসরাত হত্যার ফাঁসির আসামীর মাধ্যমেই আমরা দেখতে পেলাম আরেকবার। কিন্তু আমরা দিন দিন পিশাচে পরিণত হচ্ছি। তার এক জ্বলন্ত উদাহরন শিশু সন্তানের সামনে গৃহবধূকে ধর্ষণ করল কোন একটি দলের ছাত্র সংঘটনের নেতাসহ ৫ জন।

মনপুরায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতাসহ পাঁচ দুর্বৃত্ত এক গৃহবধূকে তার শিশু সন্তানের সামনেই দলবদ্ধ ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষণের ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ারও হুমকি দিয়েছেন ওই ছাত্রলীগ নেতা। এঘটনায় নির্যাতিতা বাদী হয়ে মনপুরা থানায় পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেছেন।

উল্লেখ্য, গৃহবধু তার আড়াই বছরের শিশু সন্তানকে নিয়ে তার শ্বশুর বাড়ী ফিরছিলেন স্পীড বোট করে। বোটটি মাঝ পথে আসলে বোটে থাকা যাত্রী দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের রহমানপুর গ্রামের বেলাল পাটোয়ারী (৩৫), মো. রাসেদ পালোয়ান (২৫), শাহীন খান (২২) ও কিরন (২৬) জোরপূর্বক বোটটি পার্শ্ববর্তী নির্জন চর পিয়াল এলাকায় নিয়ে আড়াই বছরের শিশু সন্তানের সামনেই গৃহবধূকে দলবদ্ধ ধর্ষণ করে। এভাবে হায়েনারা মহিলাটিকে পালাক্রমে ঘন্টার পর ঘন্টা ধর্ষন করতে থাকে। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৮টার দিকে চর পিয়াল থেকে পুলিশ ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে মনপুরা থানায় নিয়ে আসে।

মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাখাওয়াত হোসেন বলেন, চরফ্যাশনের দক্ষিণ আইচারে বাবার বাড়ি থেকে বেতুয়া লঞ্চঘাট হয়ে শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় স্পিডবোটে ওই গৃহবধূ মনপুরায় শ্বশুর বাড়ি ফিরছিলেন। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে বলে তিনি যানা।

ঐ থানার ওসি আরোও  জানান, পরে বোটের মালিক দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম (৩০) আরেকটি স্পিড বোট নিয়ে চর পিয়াল গিয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণ করেন। নজরুল ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করেন এবং বিষয়টি নিয়ে কথা বললে সেটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ারও হুমকি দেন বলে জানান ওসি।স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান অলি উল্লাহ কাজল জানান, চরে থাকা মহিষের বাথানিয়ারা ঘটনাটি তাকে জানালে তিনি মনপুরা থানার ওসিকে বলেন।

ওসি সাখাওয়াত বলেন, খবর পেয়ে গতকাল রাত সাড়ে ৮টায় চর পিয়াল থেকে ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে মনপুরা থানায় নিয়ে আসি। ওই সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় মনপুরা থানায় ছয়জনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে। ভুক্তভোগী নারী নিজেই এ মামলা করেন। গতকাল রাত থেকেই আমরা আসামিদের ধরার জন্য অভিযান শুরু করেছি। যে কোনোভাবেই হোক তাদের গ্রেপ্তার করা হবে।

তিনি আরোও বলেন, ধর্ষণ মামলার আসামি নজরুল ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত তিন বছর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলো।

স্থানীয় কিছু মানুষের সাথে এ ব্যপারে কিছু জানতে চাইলে ভয়ে কেউ মুখ খুলতে রাজি হননি। তাবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন, এটি নতুন নয় আরোও অনেকবার এমন ঘটনা ঘটেছে কিন্তু তার একটি ক্ষমতাসীন দলের হওয়া ভয়ে কেউ মুখ খুলে না।

বাংলা ক্যালেন্ডার