Breaking News :

তুরস্ক ১২০ ঘন্টার যুদ্ধবিরতিতে সম্মত

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ঘোষণা দেন, ৫ দিনের যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার সাথে সাথে তুরস্কের উপর বিশেষ মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে। অপরদিকে তুরস্কও ঘোষণা করেছে তাদের নির্ধারিত ‘সেইফ জোন’ হতে YPG / SDF সরে গেলে তুরস্ক স্থায়ীভাবে যুদ্ধবিরতি পালন করবে।

উত্তর সিরিয়ায় আমেরিকান এবং পশ্চিমা মিত্র কুর্দিশ কম্যুনিস্ট গেরিলা সংগঠন SDF এর বিরুদ্ধে তুরুস্কের সামরিক অভিযান ” Operation Peace Spring” এর চলমান অস্থিরতায় তুরস্ক এবং মার্কিন প্রতিনিধি দলের মধ্যে দীর্ঘ ৪ ঘন্টা ২০ মিনিটের সমযোতা বৈঠক আঙ্কারায় অনুষ্ঠিত হয়। তুরস্কের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান নিজেই।  মার্কিন প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে থাকা ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের উক্ত বৈঠকে তুরস্ক ১২০ ঘন্টার যুদ্ধবিরতিতে সম্মত জ্ঞাপন করেন।

যুদ্ধবিরতিকালীন সময়ের শর্ত হলোঃ
– কুর্দিশ SDF বাহিনী তুরস্ক নির্ধারিত ‘সেইফ জোন’ সিরিয়া-তুরস্ক সীমান্ত হতে প্রায় ২০ মাইল দূর পর্যন্ত তাদের অবস্থান প্রত্যাহার করবে।
– এছাড়াও কুর্দি SDF তাদের ভারী অস্ত্র ও সামরিক চৌকিসমূহ হস্তান্তর করবে।

কিন্তু,
– সমযোতা বৈঠকে তার্কিশ প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান YPG/SDF সেফ জোন থেকে না সরা পর্যন্ত কোন ধরনের সমযোতায় পৌছঁতে অস্বীকৃতি জানান।

বিশ্লেষকদের মতে, এর ফলে তুরস্কের কৌশলগত বিজয় হয়েছে। অন্যদিকে SDF -এর মুখপাত্র আলদার জলিল এই সমযোতা চুক্তি মানতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। কিন্তু শর্ত যাই হোক না কেন, তুরস্ক যুদ্ধ থেকে পিছপা হবে বলে মনে হচ্ছে না। অন্যদিকে, সিরিয়ার সেনাবাহিনী YPG/SDF সাথে চুক্তি করার দরুন সিরিয়ান সেনাবাহিনী সরাসরি তুরস্কের সাথে যুদ্ধে জড়িয়ে পরেছে এবং কিছু এলাকায় নিজেদের আধিপত্য বিস্তারের জন্য YPG/SDF হয়ে লড়াই করছেন।

আমেরিকা তুরস্কের সাথে বৈঠক করলেও অন্য দিকে রাশিয়ার অবস্থান এখনও পরিস্কার না। বিশ্লেষকদের ধারনা, এই যুদ্ধ এতো সহজে শেষ হওয়ার নয়। রাশিয়ার অবস্থান পরিস্কার হলেই মূল দৃশ্যপট বুঝা যাবে।

বাংলা ক্যালেন্ডার