Breaking News :

বিজিবির গুলিতে বিএসএফ নিহত, আহত ১ জন

বাংলাদেশের জলসীমায় ভারতীয় জেলেরা মাছ ধরছিল। তাদেরকে দেখে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড ধাওয়া করে গ্রেফতার করে। কিছুক্ষনের মধ্যেই বিএসএফ বাংলাদেশের সীমানায় ঢুকে পরে এবং জেলেদেরকে উদ্ধারের জন্য বিজিবির উপর গুলি ছুড়তে থাকে। বিজিবি আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। ঘটনাস্থলেই গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয় বিজয় ভান নামে এক বিএসএফ জওয়ানের। মাথায় গুলি লাগে তাঁর। আহত হন রাজবীর সিং নামে একজন হেড কনস্টেবল। বিএসএফ-এর ১১৭ নম্বর ব্যাটেলিয়নের হেড কনস্টেবল রাজবীর সিং। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

এদিকে নিজেদের অন্যায় হওয়ার পরও বিজিবি-র  গুলি চালনার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিএসএফ। প্রণব মণ্ডল নামে একজন ভারতীয় এখনও বিজিবি-র হেফাজতে রয়েছেন। বাকি দুজনকে উদ্ধার করতে পেরেছে বিএসএফ। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন বিএসএফের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য, মুর্শিদাবাদের জলঙ্গির চর পাইকমারির জিরো পয়েন্টে বিএসএফ-এর সঙ্গে বিজিবি-র গুলাগুলির ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয় এক বিএসএফ জওয়ানের। আহত হয়েছেন আরও একজন। বর্তমানে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

এদিকে ভারতীয় হিন্দুস্থান টাইমস তাদের অনলাইন পোর্টালে লিখেছেন- মাছ ধরা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ঝামেলা বাধে। চর পাইকমারিতে মাছ ধরতে গিয়েছিলেন কয়েকজন ভারতীয় মৎস্যজীবী। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, মাছ ধরতে ধরতে তাঁরা জিরো পয়েন্টে অর্থাৎ ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকায় চলে গিয়েছিলেন। অভিযোগ, সেইসময়ই ৩ জন ভারতীয় মৎস্যজীবীকে আটক করে বিজিবি । এরপরই তাঁদেরকে উদ্ধার করতে যান বিএসএফ জওয়ানরা। জানা গিয়েছে, তখনই বিএসএফ-এর সঙ্গে বিজিবি-র গুলির লড়াই শুরু হয়।

বাংলা ক্যালেন্ডার